College Admission

একাদশ শ্রেনি ভর্তি কলেজ মাইগ্রেশন ২০২২

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। ২০২১ সালে যে সকল শিক্ষার্থীর এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে তারা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য যোগ্য বিবেচিত হয়েছে। এখন সময় কলেজ ভর্তির। কলেজ ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীদের অনলাইনে কলেজ চয়েস দিতে হবে এবং সেখান থেকে সে শিক্ষার্থী যে কোন একটি কলেজে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হবে। যেহেতু সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি অনলাইন সে কারণে অনেক শিক্ষার্থী এ প্রক্রিয়া সম্বন্ধে সঠিক জ্ঞান রাখে না। তবে যদি ভালো ভাবে কলেজ ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কে না জানা হয় তাহলে একজন শিক্ষার্থী ভালো ফলাফল করে উঠলো কলেজে ভর্তির জন্য এটি একটি বিশাল বাধা। অনেক শিক্ষার্থী কলেজ ভর্তি সম্পর্কে ভালো জ্ঞান না থাকায় ভালো কলেজ এ ভর্তি হতে পারে না। তাই আপনার যদি একটি ভাল কলেজে ভর্তির ইচ্ছা থাকে তাহলে অবশ্যই আজকের এই পোষ্ট টি সম্পূর্ণ পড়তে হবে।

কলেজ মাইগ্রেশন কিভাবে করে

যেহেতু কলেজ ভর্তি প্রক্রিয়া টি কয়েকটি ধাপে সম্পন্ন হয়। কয়েকটি ধাপ এর মধ্যে প্রথমে আছে কলেজ নির্বাচন যেখানে আপনি সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ ১০ টি কলেজ চয়েস দিতে পারবেন। একজন শিক্ষার্থী সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ ১০ টি পর্যন্ত কলেজ এর একটি লিস্ট করে সেটি অনলাইনে চয়েস দিতে পারবে। কোন শিক্ষার্থী যখন একটি কলেজের জন্য নির্বাচিত হয় সেটি প্রথম ধাপ। এর পরের ধাপ হলো মাইগ্রেশন। অনেক শিক্ষার্থী মাইগ্রেশন সম্পর্কে খুবই কম জ্ঞান রাখে। অনেকে আবার মাইগ্রেশন কি তা জানি না। তাই আজ আমরা করব একাদশ শ্রেণির ভর্তির একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ধাপ কলেজ মাইগ্রেশন নিয়ে।

কলেজ মাইগ্রেশন কি

শুরুতেই জেনে নেওয়া যাক মাইগ্রেশন কি। মাইগ্রেশন শব্দের মানেই হলো পরিবর্তন। এই পরিবর্তন বিভিন্ন ধরনের হতে পারে যেমন একটা অবস্থানে থেকে অন্য স্থানে গমন কিংবা কাজের ক্ষেত্রে উন্নত জীবনের জন্য কমন। নতুন এলাকায় গমন। কোন কিছুর একাংশ থেকে অন্য একটা অংশগ্রহণ এগুলোই হল মাইগ্রেশন। অর্থাৎ মুভমেন্ট বা ট্রানস্ফার কি মূলত মাইগ্রেশন বলা যেতে পারে। তাহলে প্রশ্ন হল কলেজ ভর্তির ক্ষেত্রে মাইগ্রেশন এর কাজ কি। কলেজ ভর্তির ক্ষেত্রে মাইগ্রেশন এর ভূমিকা খুবই বেশি।

একাদশ শ্রেনির কলেজ মাইগ্রেশন করার নিয়ম ২০২২

আমাদের অনেকেরই মাইগ্রেশন সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান নেই যার ফলে আমরা কলেজ লিস্ট এমনভাবে তৈরী করি । দেখা গেল কলেজ ভর্তির প্রথম ধাপে আপনি একটি কলেজে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। কিন্তু সে কলেজে ভর্তির আপনার কোন ইচ্ছা নেই। তাহলে এখন কি করা যেতে পারে। এইখানেই মূলত মাইগ্রেশন এর কাজ। আপনার যদি মাইগ্রেশন অন থাকে তাহলে আপনি করতে পারবেন। এখন মাইগ্রেশন কিভাবে করা যায়। আপনি যে লিস্ট তৈরি করেছিলেন দশটি কলেজে এবং সে লিস্ট অনুযায়ী চলতি ছিলেন সেখানে 5 নম্বর কলেজটিতে আপনার চান্স হয়েছে। কিন্তু আপনি সেখানে পড়তে ইচ্ছুক নন।আপনি যদি মাইগ্রেশন করেন তাহলে উপরের চারটি কলেজের যেকোন একটিতে যদি আসন ফাঁকা থাকে তাহলে মাইগ্রেশনের মাধ্যমে আপনি 5 নম্বর কলেজ থেকে উপরের যেকোন একটি কলেজে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হবেন।

কলেজ মাইগ্রেশন এর ধাপ কয়টি

কলেজ ভর্তি প্রক্রিয়া শুরুর পর অর্থাৎ কলেজ ভর্তি প্রথম ধাপে আপনি কোন কলেজের জন্য নির্বাচিত হলে বা আপনার কোন কলেজে চান্স হলে তারপরে আপনি মাইগ্রেশন করতে পারবেন। তবে কোনো অবস্থাতেই আপনি আপনার লিস্টের নিচের কোন কলেজে মাইগ্রেশন করে যেতে পারবেন না। ধরা যাক আপনার চান্স হয়েছে সাত নম্বর কলেজে। কিন্তু আপনি 8 নাম্বার কলেজে ভর্তি হতে চান যা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। তাই কলেজ লিস্ট বানানোর সময় অবশ্যই যে কলেজে বেশি ভর্তি হতে ইচ্ছুক সে কলেজ গুলো সব সময় উপরের দিকে রাখবেন।

কলেজ মাইগ্রেশন বন্ধ করে কিভাবে

মাইগ্রেশন অফ করা যায়। যদি আপনার যে কলেজে চান্স হয়েছে সে কলেজে পড়তে ইচ্ছুক হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই মাইগ্রেশন অপশনটি অফ করে দিতে হবে। মাইগ্রেশন অন থাকলে কিন্তু উপরের কোন কলেজের সিট ফাঁকা থাকলে সে কলেজেও চান্স হয়েও যেতে পারে। তাই সিদ্ধান্ত নিবেন খুবই ঠাণ্ডা মাথায় এবং মাইগ্রেশন অফ আছে কি অন আছে সেটি খেয়াল রাখবেন।

কলেজ ভর্তি মাইগ্রেশন কিভাবে চালু হয়

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পরপরই যখন প্রথম ধাপের ফলাফল প্রকাশিত হয় এরপর আপনার মাইগ্রেশনের জন্য সুযোগ দেওয়া হয়। যখন প্রথম ধাপে আপনি কোন কলেজে চান্স প্রাপ্ত হবেন তখন আপনি মাইগ্রেশন টি অফ কিংবা অন করতে পারবেন। যে কলেজে চান্স হয়েছে সেটি যদি আপনার পছন্দের কলেজ হয় তাহলে অবশ্যই মাইগ্রেশন টি অফ করে দিবেন। আপনি যদি উপরের কোন কলেজে ভর্তি ইচ্ছা পোষণ করেন তাহলে মাইগ্রেশন অন করে রাখবেন। জেনে রাখা ভালো মাইগ্রেশন করতে এক্সট্রা কোন ফি দিতে হয় না। আপনি পড়বে যে কলেজে চান্স প্রাপ্ত হয়েছিলেন সে কলেজে ভর্তির জন্য টাকা পেমেন্ট করার পরে মাইগ্রেশন অপশনটি চালু হবে। যদি আপনার মাইগ্রেশন হয়ে থাকে অর্থাৎ কলেজ ট্রান্সফার যদি হয় তাহলে আপনার পেমেন্ট অটোমেটিক সেই কলেজে ট্রান্সফার হয়ে যাবে। একাদশ শ্রেণির মাইগ্রেশন দুইবার হয় প্রথম ও দ্বিতীয় তৃতীয় ধাপে কোন মাইগ্রেশন হয় না।

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি মাইগ্রেশন ফলাফল ২০২২

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি ২০২২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের মাইগ্রেশনের ফলাফল দুইটি ধাপে প্রকাশ করা হবে।

প্রথম ধাপের মাইগ্রেশন এর ফলাফল প্রকাশের তারিখ: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২২

দ্বিতীয় ধাপে মাইগ্রেশন এর ফলাফল প্রকাশের তারিখ: ১৫ ই ফেব্রুয়ারি ২০২২

একাদশ শ্রেণির মাইগ্রেশন সম্পর্কিত কয়েকটি সাধারণ প্রশ্নের উত্তর 

প্রশ্নঃ মাইগ্রেশন কি অফ করা যায়?

উত্তরঃ জি মাইগ্রেশন অফ করা যায় । আপনি যে কলেজে চান্স পেয়েছেন সেখানে ভর্তি ফি দিয়ে এরপরে মাইগ্রেশন অপশন আপনি ইচ্ছা করলে অফ অথবা অন করতে পারবেন।

প্রশ্নঃমাইগ্রেশনের জন্য কি আলাদা টাকা লাগে ?

উত্তরঃ না মাইগ্রেশনের জন্য আলাদাভাবে কোন ফি দিতে হয় না। ভর্তি নিশ্চায়নের সময় শিক্ষার্থীরা যে টাকা পরিশোধ করে উক্ত টাকাতেই মাইগ্রেশন প্রক্রিয়া চালু হয়ে যায়।

প্রশ্নঃমাইগ্রেশন কতবার হয়?

উত্তরঃমাইগ্রেশন ভর্তি প্রক্রিয়ার প্রথম দুই ধাপে হতে পারে। কোন মাইগ্রেশন হয় না।

প্রশ্নঃমাইগ্রেশন এর ফলাফল কোথায় পাওয়া যাবে?

উত্তরঃ www.eduboardbd.com ওয়েবসাইটে মাইগ্রেশন এর ফলাফল পাওয়া যাবে।

প্রশ্নঃলিস্ট এ থাকা নিজের কলেজগুলোতে কোন ভাবে মাইগ্রেশন সম্ভব কিনা?

উত্তরঃ কোনভাবেই সম্ভব নয়।

Muntasir Mamun

Entering the blogging world as a hobby. Writing gives me pleasure. I’m human, I have weaknesses, I make mistakes and I experience sadness; But I learn from all these things to make me a better person.Always keep a smile on your face😊.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button